IELTS প্রস্তুতি

IELTS প্রস্তুতি

IELTS প্রস্ততির নাম শুনলেই একদল মানুষের চোখের সামনে নানা কোচিং সেন্টারের নাম ভেসে উঠে। কোচিংয়ে ভর্তি হলেই IELTS ব্যান্ড 8, 8.5 উঠে যাবে এই ধারণা নিয়ে যারা কোচিং করেছে তাদের অধিকাংশই হয়তো পরে আফসোস করেছে। শুধু IELTS না যেকোনো পরীক্ষার জন্যই কোচিং শুধুমাত্র ডিরেকশন মাত্র। কোচিং করলে আপনি কেবল পরীক্ষার ধারণা পাবেন আর কীভাবে প্রস্তুতি নিতে হয় সে সম্পর্কে জানতে পারবেন। তবে পরীক্ষার প্রস্তুতি পুরোটাই নির্ভর করছে নিজের উপর। আপনি নিজে কতটা নিজেকে প্রস্তুত করতে পারছেন তাই হচ্ছে সবচেয়ে বড় ব্যাপার।

আপনি কোচিং সেন্টারে ভর্তি হয়ে IELTS সম্পর্কে যে ধারণা পাবেন ঠিক একই ধারণা আপনি নীলক্ষেত থেকে কেনা বই থেকেও পাবেন। বর্তমানে ইউটিউবেও IELTS সম্পর্কে শত শত ভিডিও রয়েছে সেগুলো দেখে আপনি কোচিং সেন্টার থেকে আরও বেশি উপকার পাবেন। নির্দিষ্ট কিছু বই, ইন্সট্রাকশন কিংবা ম্যাটেরিয়ার ফলো করলে আপনি কোচিং করা ছাড়াই IELTS এ বেশ ভালো একটা ব্যান্ড তুলতে পারবেন। আর এখন অনলাইনেও ফ্রি-তে বিভিন্ন সাইটে মক টেস্ট দেওয়া যাচ্ছে। সুতরাং ঘরে বসেই আপনি একদম অল্প খরচে প্রস্তুতি নিতে পারেন আর এই প্রস্তুতি হবে সবচেয়ে বেশি ইফেক্টিভ।

IELTS প্রস্তুতির জন্য আপনার সবচেয়ে বেশি যেটা জরুরি তা হচ্ছে ইংরেজির প্রতি আগ্রহ। যদি ইংরেজিকে একটি সেকেন্ড ল্যাংগুয়েজ হিসেবে দেখেন বা শুধুমাত্র বিদেশি একটি ভাষা হিসেবেই দেখেন তাহলে আপনার জন্য IELTS প্রস্তুতি বেশ কঠিন হয়ে যাবে। কেননা যতক্ষণ না আপনি একে নিজের ভাষা হিসেবে আয়ত্ত্ব করার চেষ্টা করছেন ততক্ষণ অব্দি এই ভাষা আপনার কাছে কঠিনই মনে হবে। আর সেইসাথে আগে থেকে ইংরেজি বই কিংবা জার্নাল পড়া, নিউজ বা মুভি দেখার অভ্যাস থাকতে হবে কেননা IELTS এর রিডিং আর লিসেনিং ধাপে এগুলো খুবই কাজে লাগে। আপনাকে লিসেনিং ধাপে খুব মনোযোগ দিয়ে সব কথা শুনতে হবে। এখন আপনার যদি আগে থেকেই ইংরেজিতে নিউজ শোনার অভ্যাস থাকে তাহলে খুব দ্রুতই সেই এক্সেন্ট আপনি ধরে ফেলতে পারছেন। আবার যদি আগে থেকে বই পড়ার অভ্যাস থাকে তাহলে রিডিং পার্টে প্রতিটি প্যাসেজ আপনি বেশ দ্রুত সময়ের মধ্যে কমপ্লিট করে ফেলতে পারবেন।

IELTS এর প্রস্তুতি হিসেবে সহায়ক কিছু বই ফলো করতে পারেন। এগুলোতে IELTS সম্পর্কে নানা নির্দেশনা দেওয়া আছে। বাজারে IELTS সম্পর্কিত বিভিন্ন বই আছে সেগুলো থেকে ২-১ টা বই কিনে উলটে পালটে দেখলে দেখবেন ঘুরে ফিরে সব বইয়ে এক কথায় আছে। এগুলো ঘেঁটে ঘেঁটে প্রস্তুতি নিতে হবে। The Official Cambridge Guide to IELTS বইটিতে আপনি একদম টেক্সট বইয়ের মতোই সমস্ত পাঠ পেয়ে যাবেন। বইটিতে IELTS এর বিভিন্ন খুঁটিনাটি বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে আর এতে ভালো করার বিভিন্ন টেকনিকও বলে দেওয়া হয়েছে। তাছাড়া IELTS এর চারটি ধাপের জন্যই কিছু এক্সারসাইজ দেওয়া আছে যেগুলো পরীক্ষায় ভালো করতে বেশ সাহায্য করবে।

Mentor IELTS Guide বইটিতেও IELTS এর Rules & Regulations, Marks Distribution এবং পাঠ্যবিষয় সম্পর্কে বাংলায় খুব ভালো ও সহজ ধারণা পাবেন। এই বইটিতে পুরোটাই IELTS পরীক্ষার নিয়ম কানুনের একদম খুঁটিনাটি বর্ণনা করা আছে। নাম দেখেই বোঝা যায় IELTS এর জন্য একটি গাইড বই এটি। প্র্যাকটিস শুরু করার জন্য এই বইটি বেশ সহায়ক একটি বই। Cambridge Practice Tests for IELTS Book এর ১৪ খন্ডের একটি সেট রয়েছে। ইন্টারনেটেও এখন এগুলো বেশ এভেইলেবল রয়েছে। এই বইগুলা প্র্যাকটিস করেই সবাই IELTS দিয়ে থাকে। IELTS এর জন্যে এই বইগুলোকে বাধ্যতামূলক হিসেবেও ধরা যায়, বিশেষ করে ৭-১৪ এই খন্ডগুলো খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এই খন্ডগুলো সলভ না করে IELTS এর এক্সাম দিতে যাওয়া কোনভাবেই উচিত না।

সবশেষে আসে স্পিকিং দক্ষতা। এই স্পিকিং দক্ষতা কোনো গাইড বই ফলো করে কিংবা হাজারটা কোচিং করেও ভালো করা সম্ভব না যতক্ষণ না আপনি নিজে নিজে স্পিকিং এর চেষ্টা করছেন। গ্রামার মেনে ইংরেজিতে কথা বলা অনেক টাফ। তাই ভুল গ্রামারেই কথা বলার চেষ্টা করুন আস্তে আস্তে ভুলগুলো কমে যাবে। আপনার মতোই IELTS দিতে চাই এমন একজন বন্ধুর সাথে প্রস্তুতি নেওয়ার চেষ্টা করুন। দুজন মিলে ইংরেজিতে কনভারসেশন চালিয়ে যান, নিয়মিত প্র্যাকটিস করুন। আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে ইংরেজিতে কথা বলুন। ইংরেজিতে চিন্তা ভাবনা করার চেষ্টা করুন। আর সবচেয়ে বড় কথা হচ্ছে আত্মবিশ্বাস। ইংরেজি আমাদের প্রথম ভাষা না। শিখতে গেলে কিংবা বলতে গেলে অবশ্যই আমাদের ভুল হবে। এই ভুলকে সাধারণ ভাবে নেওয়ার চেষ্টা করুন আর প্রস্তুতি চালিয়ে যান।

Leave a Comment

error: Content is protected !!