Independent University Bangladesh ( IUB )

Independent University Bangladesh

পরিচিতি :
ইন্ডিপেনডেন্ট ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ (Independent University Bangladesh) বা সংক্ষেপে আইইউবি (IUB) নামে পরিচিত প্রতিষ্ঠানটি বাংলাদেশের শীর্ষস্থানীয় বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে অন্যতম। ১৯৯৩ সালে প্রতিষ্ঠিত হওয়া ইন্ডিপেনডেন্ট ইউনিভার্সিটি, বাংলাদেশ একটি অলাভজনক বেসরকারি উচ্চ-শিক্ষা প্রতিষ্ঠান যা বৃহৎ ঢাকা মহানগরীর শহুরে পরিবেশে অবস্থিত। ৮ হাজার ৪২৩ জন ছাত্র, ১৩ হাজার ৭৪৫ জন প্রাক্তন ছাত্র এবং ৪০১ ফ্যাকাল্টি সদস্যের (যার মধ্যে 38% এরও বেশিরভাগ পিএইচডি সম্পন্ন করেছে উত্তর আমেরিকা থেকে) একটি সম্পূর্ণ পরিষেবা এবং মেধাতান্ত্রিকভাবে অভিজাত বিশ্ববিদ্যালয় ইন্ডিপেনডেন্ট ইউনিভার্সিটি, বাংলাদেশ।

ঢাকা মহানগরীর বসুন্ধরা এলাকায় ৩ একর জায়গা জুড়ে বিস্তৃত IUB ক্যাম্পাসে একটি অ্যাম্ফিথিয়েটার, অত্যাধুনিক গবেষণাগার, জার্নাল এবং বইয়ের অনলাইন অ্যাক্সেস সহ সুসজ্জিত লাইব্রেরি, ৭০ টিরও বেশি শ্রেণীকক্ষ, লেকচার গ্যালারী, অডিটোরিয়াম, জিমনেসিয়াম, ফুড কোর্ট, খেলার মাঠ, মেডিকেল সেন্টার, কাউন্সেলিং সেন্টার এবং প্রাক্তন ছাত্রদের অফিস রয়েছে। আইইউবিতে ঢাকার বাইরের ছাত্র ছাত্রী এবং বিদেশী শিক্ষার্থীদের জন্য ডরমিটরি সুবিধা এবং ক্যাম্পাস পরিদর্শন করা অভিজ্ঞ ব্যক্তিবর্গের জন্য একটি অতিথিশালা রয়েছে।

এই প্রতিষ্ঠানের চট্টগ্রামেও একটি শাখা ক্যাম্পাস রয়েছে। প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই বিশ্ববিদ্যালয়টি গবেষণা ও বৈশ্বিক অংশীদারিত্বের উপর সুস্পষ্ট দৃষ্টি নিবদ্ধ করে আসছে। বাংলাদেশের বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন কর্তৃক আনুষ্ঠানিকভাবে স্বীকৃত, ইন্ডিপেনডেন্ট ইউনিভার্সিটি, বাংলাদেশ (IUB) হল একটি মাঝারি আকারের (ইউনির‍্যাঙ্ক তালিকাভুক্তির পরিসীমা অনুযায়ী মাঝারি আকারের বিশ্ববিদ্যালয়ে ৬ হাজার থেকে ৬ হাজার ৯৯৯ জন শিক্ষার্থী থাকে) সহশিক্ষামূলক বাংলাদেশি উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। ইন্ডিপেনডেন্ট ইউনিভার্সিটি, বাংলাদেশ (IUB) যে কোর্স এবং প্রোগ্রামগুলি অফার করে তা অধ্যয়নের বিভিন্ন ক্ষেত্রে সরকারিভাবে স্বীকৃত উচ্চ শিক্ষার ডিগ্রি, যেমন স্নাতক ডিগ্রি এবং স্নাতকোত্তর ডিগ্রি। এই ২৮ বছর বয়সী বাংলাদেশী উচ্চ-শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্রবেশিকা পরীক্ষা এবং শিক্ষার্থীদের অতীতের একাডেমিক রেকর্ড এবং গ্রেডের উপর ভিত্তি করে একটি নির্বাচনী ভর্তি নীতি রয়েছে। ভর্তির হারের পরিসীমা ৬০-৭০% এই বাংলাদেশি উচ্চশিক্ষা সংস্থাটিকে কিছুটা নির্বাচিত প্রতিষ্ঠানে পরিণত করেছে।

লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য:
IUB- এর লক্ষ্য হল সম্প্রদায় এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে দ্বিমুখী সম্পর্কের মাধ্যমে দেশের উচ্চ শিক্ষা এবং টেকসই অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির লক্ষ্য অর্জন করা। স্থানীয় পরিবেশে আন্তর্জাতিক মানের স্নাতক তৈরি করা, এন্টারপ্রাইজ, পাবলিক সার্ভিস এবং কল্যাণে নেতৃত্ব প্রদানের জন্য জ্ঞান এবং প্রাসঙ্গিক দক্ষতা সহ; দরকারী গবেষণায় উৎসাহিত করা এবং তাতে সমর্থন দেওয়া; জ্ঞান তৈরি করা; এবং প্রাপ্তবয়স্কদের জন্য আরও শেখার সুযোগ প্রদান করা এই প্রাইভেট প্রতিষ্ঠানটির অন্যতম উদ্দেশ্য। স্নাতক শিক্ষার জন্য পাঠ্যক্রমের উদ্দেশ্য হল একটি শক্তিশালী মানবিক পটভূমি, একটি বিষয়ে জ্ঞান এবং দক্ষতা (যেমন একটি প্রধান বিষয়ের উপর), এবং একটি সাব- স্পেশালাইজেশন (নাবালক) সহ যোগাযোগ দক্ষতা (মৌখিক এবং লিখিত যোগাযোগ এবং কম্পিউটার দক্ষতা) শেখানো।

এটি শিক্ষার্থীদের মধ্যম ব্যবস্থাপনা দক্ষতা এবং উচ্চশিক্ষা গ্রহণের জন্য প্রয়োজনীয় পটভূমিতে সজ্জিত করার চূড়ান্ত লক্ষ্যের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ। জাতীয় চাহিদা এবং বিশ্ববাজারের চাহিদার সাথে প্রাসঙ্গিকতার ভিত্তিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঠ্যক্রম এবং অধ্যয়নের কোর্সগুলি ধীরে ধীরে সংশোধিত এবং সামঞ্জস্য করা হয়। বিদেশের স্বনামধন্য বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর সাথে বিনিময় সম্পর্কের মাধ্যমে শিক্ষার মান বজায় থাকে। একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় হিসাবে, IUB তার নিজস্ব পাঠ্যক্রম এবং পদ্ধতির পদ্ধতি নির্ধারণ করতে এবং দেশে এবং বিদেশে শিক্ষাবিদদের সহযোগিতা করতে স্বাধীন। এটি এমন গ্র্যাজুয়েট তৈরি করে যারা অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির প্রচারের জন্য বিপণনযোগ্য দক্ষতা সহ উদার শিল্পে ভালোভাবে প্রতিষ্ঠিত।

 

একাডেমিক প্রোগ্রামস :
ইন্ডিপেনডেন্ট ইউনিভার্সিটি, বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক মানের স্নাতক তৈরি করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। এই বেসরকারি প্রাইভেট প্রতিষ্ঠানটি দক্ষ কর্মসংস্থান, উদ্যোক্তা এবং/অথবা ফলিত গবেষণার মাধ্যমে জাতীয় অর্থনীতিতে নতুন নেতৃত্ব প্রদানের জন্য প্রতিটি ফ্যাকাল্টিকে বিশেষভাবে সজ্জিত করেছে যাদের দ্বারা আন্তর্জাতিক মানের কোর্স শিক্ষার্থীদের দেওয়া হয়ে থাকে।

IUB-এর পাঠ্যক্রমটি শিক্ষার্থীদের (1) যোগাযোগ দক্ষতা, (2) সামাজিক-সাংস্কৃতিক পটভূমি, (3) প্রয়োগযোগ্য দক্ষতা বা প্রকল্প ভিত্তিক অভিজ্ঞতা এবং (4) উপ-বিশেষায়নের একটি ক্ষেত্র প্রদান করার জন্য যত্ন সহকারে ডিজাইন করা হয়েছে। প্রথম বছরে, শিক্ষার্থীরা শেখার দক্ষতা, জাতীয় সংস্কৃতি এবং কলা ও বিজ্ঞানের বিকল্প বিষয়ে কোর্স প্রদান করা হয়ে থাকে।

শিক্ষাদানের ক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক মান নিশ্চিত করতে এবং শিক্ষার্থীদের বিদেশে অধ্যয়ন বা আন্তর্জাতিক অভিজ্ঞতা অর্জনের জন্য বিস্তৃত বিকল্প প্রদানের জন্য, IUB বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় বিশ্ববিদ্যালয় এবং প্রতিষ্ঠানগুলির একটি বড় সংখ্যার সাথে সমকক্ষ সম্পর্ক বজায় রাখে। অধ্যয়নের প্রোগ্রাম এবং এই বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক নিয়মাবলী আমেরিকান কোর্সের কাঠামো এবং সেমিস্টার সিস্টেমের উপর ভিত্তি করে খুব সুন্দর করে সাজানো হয়েছে। IUB এর তিনটি একাডেমিক পদ রয়েছে: বসন্ত, গ্রীষ্ম এবং শরৎ যথাক্রমে জানুয়ারি, মে এবং সেপ্টেম্বরে ক্লাস শুরু হয়। প্রতিটি টার্ম শুরুর দুই মাস আগে নভেম্বর, এপ্রিল এবং জুলাই মাসে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।

IUB- তে কি কি সাবজেক্ট পড়ানো হয়  এবং খরচ কত? :

1. BBA —– —–125 credits —– 8,66,000 TK
2.ECO – ———120 credits – ——8,36,000 TK
3.Sociology —– 126 credits – —8,66,000 TK
4.English Literature – –125 credits — 8,66,000 TK
5.English Language Teaching (ELT) – 125 credits – 8,66,000 TK
6. LLB(Hon’s) – 137 credits – 9,38,000 TK
7. Global Studies & Governance – 127 credits – 8,78, 000 TK
8. Media & Development Communication -126 credits – 8,72,000 TK
9.CSE ———- 143 credits —– 9,74,000 TK
10.CS/CE——- 134 credits —— 9,20,000 TK
11.EEE- ——-131 credits —— 9,98,000 TK
12. ETE—— 130 credits ——-9,86,000 TK
13. Physics — 133 Credits —–9,14,000 TK
14.Mathematics — 134 Credits —- 9,20,000 TK
15. Microbiology —- 134 credits —– 9,20,000 TK
16. Biochemistry & Biotechnology — 134 credits — 9,20,000 TK
17. Pharmacy –170 Credits ——–11,36,000 tk
18.Environmental Science & Management — 129 credits — 8,90 ,000 TK
19.Anthropology —— 127 credits —- 8,78,000 TK

IUB তে যারা যারা এডমিশন নিতে চায় তারা কি কি সুবিধা পাবে বা স্কলারশিপ পাবে?

ক. মেরিট স্কলারশিপঃ
১. এডমিশন টেস্ট এ যারা যারা সর্বোচ্চ রেজাল্ট করে তাদের মধ্যে শতকরা ৫% কে ৫০-১০০% টিউশন ফি স্কলারশিপ দেয়া হয়।
২. যারা যারা SSC & HSC তে ৪র্থ বিষয় বাদে জিপিএ ফাইভ পেয়েছে তাদের কে ১০০% টিউশন ফি ওয়েভার দেয়া হয় , আর যারা ৪র্থ বিষয় সহ জিপিএ ফাইভ পেয়েছে তাদের কে ৫০% ওয়েভার দেয়া হয়।
O level & A level থেকে যারা পাশ করেছে তাদের O level এ ৫ টা A ও A level এ ২ B থাকলে ৫০% এবং O level এ ৫ টা A ও A level এ ২A থাকলে ১০০% টিউশন ফি ওয়েভার দেয়া হয়।

এই ওয়েভার টা শুধু মাত্র প্রথম দুই সেমিস্টারের জন্য দেয়া হয়ে থাকে।

৩য় সেমিষ্টার থেকে CGPA  মেইনটেইন এর উপর ওয়েভার পাবে।

৩.৫০ CGPA মেইনটেইন করতে পারলে ৩০% ওয়েভার পাবে।
৩.৭০ CGPA মেইনটেইন করতে পারলে ৫০% ওয়েভার পাবে।
৩.৮০ CGPA মেইনটেইন করতে পারলে ৭৫% ওয়েভার পাবে।
৩.৮৫ CGPA মেইনটেইন করতে পারলে ১০০% ওয়েভার পাবে।

৩. সেমিস্টার শুরুর পর সেমিস্টারের রেজাল্ট (৩.৫১ থেকে শুরু) এর উপর ৩০% থেকে ১০০% ওয়েভার দেয়া হয়।

খ. আর্থিক সহোযোগিতাঃ
১. সর্বোচ্চ ১০০% পর্যন্ত বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সন্তানেরা টিউশন ফি ওয়েভার পাবে।তবে তার জন্য তাকে উপযুক্ত কাগজপত্র সহ আবেদন করতে হবে।

গ. টিউশন ফি ছাড়ঃ
১. জাতীয় পর্যায়ে পুরষ্কার প্রাপ্ত বা জাতীয় পর্যায়ে খেলাধুলা করেছে এমন সহ শিক্ষা কার্যক্রমে পারদর্শী স্টুডেন্ট রা ১০০% পর্যন্ত ওয়েবার পেতে পারে। তবে তার জন্য তাকে উপযুক্ত কাগজপত্র সহ আবেদন করতে হবে।
২. শারীরিকভাবে প্রতিবন্ধীদের জন্য ১০০% পর্যন্ত টিউশন ফি ওয়েভার দেয়া হয়।
৩. বিভিন্ন উপজাতিদের IUB তে পড়াশোনার জন্য ১০০% পর্যন্ত ওয়েভার দিয়ে থাকে।
৪. ফিমেল স্টুডেন্ট দের তাদের মোট ওয়েভারের উপর আরও ১০% অতিরিক্ত ওয়েভার দেয়া হয়।
৫. IUB তে ভাই-বোনদের জন্য ৫০% পর্যন্ত ওয়েভার দেয়া হয়ে থাকে।
৬. IUB এলামনাইদের সন্তানদের জন্য ১০% ওয়েভার দেয়া হয়।

Leave a Comment

error: Content is protected !!